"/> অন্তর্জাল
সুন্দরবন
সরকার কি তোমাগের থেকে কম বুঝে?
ফিরোজ আহমেদ -11/17/2016

কালীগঞ্জের মন্টু শোনালেন শরীফ শাহ দেওয়ানের একটা গান, সুন্দরবন নিয়ে। -লেখক।





'সরকার কি তোমাগের থেকে কম বুঝে, সেইটা আমরে বুঝায়ে কও! সরকার তো কয়েছেই যা যা দরকার সব বন্দোবস্ত নিবেন তারা। তালিপড়ি তোমাগের এত সন্দেহের কি কারণ? ' দুষ্টামি ভরা হাসি নিয়ে বললেন চায়ের দোকানে এক মুরুব্বী, ঝিনাইদহের এক বাজারে। সংক্ষেপে তাকে বললাম পারদের বিষের কথা, কিভাবে তা সুন্দরবনের সব জলজ প্রাণকে বিষাক্ত করবে, কিভাবে তা মাছের শরীর থেকে মানুষের শরীরে, গর্ভবর্তী মায়ের দুধ থেকে শিশুর শরীরে চলে আসে, কিভাবে তা ভবিষ্যত প্রজন্মকে স্নায়ুর রোগে আক্রান্ত করে। বললাম সুন্দরবন দেশের অন্যতম প্রধান মাছের ভাণ্ডার, মধুর ভাণ্ডার, প্রাণবৈচিত্রের ভাণ্ডার। তারপর বললাম সুন্দরবনের ভারতীয় অংশের নযাচরে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র বাতিল করার আদালতের আদেশের কথা। কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্র নিরাপদ হলে কি ভারত তার নিজের অংশে এমন প্রকল্প বাতিল করতো, সেই প্রশ্ন করলাম। তারপর বললাম, চিমনি উঁচু হওয়া মানে আরও দূর দূরান্তে বিষ ছড়িয়ে পড়ার কথা। অম্লবৃষ্টির ফলে কিভাবে মানুষ প্রকৃতি ফসল সব ধ্বংস হবে সেই কথা। বুড়ো মিটিমিটি হাসে, আর শোনে। শেষে বলে, এইসব কথা তো টকশোতে শুনতি শুনতি মুখস্ত, তোমাদের পাইয়ে এই হাটের লোকজনরে শুনায়ে দিলাম। নাও, চা খাও এইবার। ওই শোনো, ভাল দেখে চা বানাও দেখি এই নাতিদের জন্য কয় কাপ!

এই বুড়োর চেয়েও ধুরন্ধর এক লোকের সাক্ষাৎ পেয়েছেন আমাদের যশোরের ছাত্র ফেডারেশন এর বন্ধুরা। ২৬ নভেম্বর জাতীয় কমিটির মহাসমাবেশ আর 'ঢাকা চলো' কর্মসূচির জন্য গণচাঁদা তুলতে গিয়ে একজন তাদের বললেন, আমার এইখানে এ্কটু বসো, নাশতা করো, তারপর চা খাও, তোমাদের কাজকম্মো বিস্তারিত বলো। তবে চাঁদা কিন্তু দেবো মাত্র বিশ টাকা। বেশি চাঁদা দিলে তোমরা কম কম লোকের কাছে যাবা।

এসব তো দুষ্ট লোকজনের গল্প। মুগ্ধ হয়েছি অন্য একটা অভিজ্ঞতায়। কালীগঞ্জের গণসংহতির বন্ধু আশরাফের ওখানে মন্টু শোনালেন শরীফ শাহ দেওয়ানের একটা গান, সুন্দরবন নিয়ে। পক্ষাঘাতগ্রস্ত শরীফ শাহ দেওয়ানের এখন সম্ভবত ৭৫ এর মত বয়েস, কিন্তু প্রেমের সেই শক্তি তার মনটাকে এখনও তাজা রেখেছে। সুন্দরবনকে নিযে ভারত-বাংলাদশের দুই চক্রান্তকারীর ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে তিনি লিখেছেন এই গানটি। সেই গানটিই গাইলেন মন্টু। জামানের সৌজন্যে গানটা অন্তর্জালের উপযোগী করা গেলো।

(গানটি শুনতে ক্লিক করুন এখানে।)

সুন্দরবনের এমনই শক্তি, জাগিয়ে রাখছে শরীফ শাহ দেওয়ানকে, এই্ অসুস্থ শরীর নিযেও তিনি দিযে যাচ্ছেন যতটুকু সম্ভব। সুন্দরবন এভাবে জাগিয়ে দিচ্ছে গোটা বাংলাদেশকে।
আমি-তুমি জাগছি তো? ২৬ নভেম্বর দেখা হবে শহীদ মিনারে।
আক্রান্ত হলে সুন্দরবন, জবাব দেবে জনগণ।



ফিরোজ আহমেদ
জন্ম: ২৮ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭৫
লেখক, ভাষ্যকার, এ্যক্টিভিস্ট
সাবেক&